ওয়াশিংটন, ডি.সি. স্থানীয সময়:

Developed By iPixel Creative

UPCOMING COMMUNITY EVENTS

Meena Bazar

"PEOPLE N TECH MEENABAZAR AND EID FASHION SHOW"

Date: 27 July 2014

Day: Sunday

Time: 5:00 p.m. - 11:00 p.m.

Place : FAIRFAX HIGH SCHOOL

3501 Rebel Run, Fairfax, VA 22030 (LOTS OF FREE PARKING)

 

Prio Bangla Street Fair 2014

PRIO BANGLA PRESENTS

"STREET FAIR 2014"

Date: 13 September 2014

Day: Saturday

Time: 11:00 a.m. - 10:00 p.m.

Place : 800 South Walter Reed Drive, Arlington, VA 22204

percel_plus

 

Direct Call to Bangladesh

bangladeshembassy

তুরস্কের নারীরা ঘরে সবচেয়ে বেশি সময় দেন

তুরস্কের নারীরা ঘরের কাজে সবচেয়ে বেশি সময় দেন। প্রতিদিন গড়ে ৩৭৭ মিনিটে ঘরের কাজ বা কেনাকাটায় খরচ করেন তুর্কি নারীরা। অন্যদিকে তাদের পুরুষ সঙ্গীরা এ কাজে খরচ করেন দিনে গড়ে ১১৬ মিনিট। সম্প্রতি প্রকাশিত এক জরিপে এ তথ্য জানা গেছে। জরিপটি পরিচালনা করে ইউরোপীয় অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও উন্নয়ন সংগঠন ওইসিডি। ওইসিডিভুক্ত ৩৪টি দেশের বিশ হাজারের মতো মানুষ এ জরিপে অংশ নিয়েছেন। জরিপের তথ্যমতে, ঘরের কাজে নারীদের সবচেয়ে বেশি সহায়তা করেন নরওয়ের পুরুষরা। এদিক থেকে সবচেয়ে পিছিয়ে আছেন জাপানের পুরুষরা। সংগঠনটি জানিয়েছে, ক্যারিয়ার গড়ার ক্ষেত্রে নারীরা ক্রমশ পুরুষের সঙ্গে থাকা দূরত্ব ঘুচিয়ে ফেলছেন। ঘরের কাজের ক্ষেত্রে নারী ও পুরুষের মধ্যে এখনো অনেক পার্থক্য রয়ে গেছে। পুরুষরা এ ক্ষেত্রে খুব ধীরগতিতে এগুচ্ছেন। অন্যদিকে জাপানি পুরুষরা দিনে গড়ে ৬২ মিনিট সংসারের টুকটাক কাজের দিকে মনোযোগ দেন। আর নারীরা প্রতিদিন গড়ে ৩০০ মিনিট করে সময় দেন।

 

তবে নরওয়ের পুরুষরা সবচেয়ে বেশি সহায়তা করলেও নারীদের তুলনায় তারা এখনো পিছিয়ে। সে দেশের একজন পুরুষ প্রতিদিন গড়ে ১৮০ মিনিট সংসারের কাজে সময় দেন। নারীরা এ ক্ষেত্রে সময় দেন ২১০ মিনিট। জরিপে উঠে এসেছে, ইউরোপের উত্তরাঞ্চলের নারীরা অলস সময় কাটাতে বেশি ভালোবাসেন। বিশেষ করে নরওয়ের নারীরা প্রতিদিন গড়ে ৩৬৭ মিনিট আয়েশ এবং আনন্দ করে কাটান। ব্রিটেনের নারীরা এক্ষেত্রে প্রতিদিন ব্যয় করেন ৩৩৯ মিনিট।

ক্রিমিয়া প্রশ্নে ইউক্রেনকে আমেরিকার জোরালো সমর্থন

ইউক্রেনের ঘনীভূত সংকট পূর্ব ও পশ্চিমের পুরনো দ্বন্দ্বকে পুনরায় জাগিয়ে তুলেছে। কিয়েভের প্রতি ওয়াশিংটনের সুস্পষ্ট জোড়ালো সমর্থন এবং স্বশাসিত অঞ্চল ক্রিমিয়ার অন্তর্ভুক্তিকরণ বন্ধ করার জন্য মস্কোর কাছে জি-৭ গোষ্ঠীর দাবি এ সংকটকে আরো ঘনীভূতই করেনি বরং রাশিয়া ও মার্কিনীদের নেপথ্যের বিরোধ পুনরায় সচল করে তুললো।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, আঞ্চলিক ও সার্বভৌমত্ব রক্ষার প্রচেষ্টায় ইউক্রেনের পাশে দাঁড়াবে ওয়াশিংটন।

গত বুধবার হোয়াইট হাউজে ইউক্রেনের প্রধানমন্ত্রী আরসেনিই ইয়েতসেনইউকের সাথে বৈঠক শেষে ওবামা বলেন, অবিলম্বে রাশিয়া যদি ক্রিমিয়ার ব্যাপারে তার বর্তমান অবস্থান থেকে সরে না আসে তাহলে মস্কোর ওপর পশ্চিমাদের পক্ষ থেকে অবরোধ আরোপ করা হবে ।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, এই গণভোট আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে। তিনি আরো বলেছেন মস্কো যে পথে হাঁটছে তা চালিয়ে গেলে তার খেসারত তাদের অবশ্যই দিতে হবে।

ইয়েতসেনইউক বলেন, তার দেশ কখনো রাশিয়ার কাছে আত্মসমর্পণ করবে না এবং মস্কোর সাথে আলোচনায় বসার ব্যাপারে তারা তাদের পূর্বের অবস্থানে অটল রয়েছে । তিনি বলেন, ইউক্রেন পশ্চিমা বিশ্বের একটি অংশ হবে । তিনি আরো বলেন,একবিংশ শতাব্দীতে এসে স্বাধীন ইউক্রেনের মাটিতে রাশিয়ান সেনা একেবারেই অগ্রহণযোগ্য ।

ইউক্রেন-রাশিয়া সংকট সমাধানের উপায় নিয়ে আলোচনা করতে ইউক্রেনের অন্তর্বর্তী সরকারের প্রধানমন্ত্রী হোয়াইট হাউজে ওবামার সাথে দেখা করেন । অন্যদিকে, ইউরোপিও ইউনিয়ন এবং জি-৭ ভুক্ত দেশগুলো আগেই জানিয়ে দিয়েছে গণভোট অনুষ্ঠিত হলে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে তারা। রাশিয়ার সঙ্গে যোগ দেওয়ার লক্ষ্যে ক্রিমিয়ার সংসদে পাস হওয়া একটি বিল রেফারেন্ডাম আকারে গণভোটের জন্য ১৬ মার্চ উপস্থাপন করার কথা রয়েছে । এই গণভোটের ফলাফলকে স্বীকৃতি দেয়া হবেনা বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে জি-৭ ভুক্ত দেশগুলো ।

জোটের ৭ টি দেশ ব্রিটেন, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, জাপান এবং যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি ইউরোপীয় ইউনিয়নও রাশিয়াকে ক্রিমিয়ার ব্যাপারে তাদের অবস্থান থেকে সরে আসার আহ্বান জানিয়েছে। হোয়াইট হাউজের প্রকাশিত একটি বিবৃতিতে তারা বলেছে, ক্রিমিয়াকে সংযুক্ত করে নেয়ার রাশিয়ার পদক্ষেপ কেবল ইউক্রেনের একতা, সার্বভৌমত্ব এবং আঞ্চলিক অখন্ডতার ওপরই প্রভাব ফেলবে না বরং তা অন্যান্য রাজ্যের একতা, সার্বভৌমত্ব সুরক্ষা আইনের ওপরও মারাত্মক প্রভাব ফেলবে ।

তাছাড়া, পর্যাপ্ত প্রস্তুতি ছাড়া এবং রুশ সেনাদের ভীতিকর উপস্থিতির মধ্যে গণভোট অনুষ্ঠিত হলে প্রক্রিয়াটি ত্রুটিমুক্ত হবে না । ফলে এটি ন্যায়সঙ্গতও হবে না বলে জানিয়েছে জি-সেভেন ।

আর সে কারণে রাশিয়াকে ক্রিমিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার করে কিয়েভের সঙ্গে সরাসরি আলোচনায় বসার জন্য নতুন করে আহ্বান জানিয়েছেন পশ্চিমা নেতারা ।

 

ইউরোপের সঙ্গে একটি চুক্তি বাতিল করা নিয়ে গত নভেম্বরে ইউক্রেনে যে আন্দোলন শুরু হয় তারই ধারাবাহিকতায় ক্ষমতাচ্যুত হন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভিক্টর ইয়ানুকোভিচের । এর পরই ক্রিমিয়াতে অবস্থান নেয় রাশিয়ার সেনারা। তারা এখনো ঐ এলাকার নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এএফপি/আল জাজিরা

ধ্বংসাবশেষ পাওয়া যায়নি নিখোঁজ মালয়েশীয় বিমানের

গত শুক্রকার নিখোঁজ হওয়া মালয়েশীয় এয়ারলাইন্সের বিমানটির ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে বলে চীনের একটি সংস্থা যে দাবি করেছিল তা নাকচ করা হয়েছে। কারণ উপগ্রহের মাধ্যমে তোলা ওই ছবিটির স্থলে মালয়েশিয়া এবং ভিয়েতনাম অনুসন্ধান বিমান পাঠালেও সেখানে তারা কোনো ধ্বংসাবশেষ দেখতে পায়নি বলে জানিয়েছে। এরমধ্য দিয়ে নিখোঁজ বিমানটি খুঁজে পাওয়া নিয়ে আবার রহস্য ঘনীভূত হলো। মঙ্গলবার চীনের একটি সংস্থা বিমানের ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে বলে দাবি করার পর অনুসন্ধানকারীদের মধ্যে যে চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছিল, তাও থিতিয়ে পড়লো।

মঙ্গলবার চীন সরকারের একটি গুরুত্বপূর্ণ সংস্থার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, তাদের একটি উপগ্রহ মালয়েশিয়ার পূর্ব উপকূলে ভিয়েতনামের কাছে সাগরে সন্দেহজনক ধ্বংসাবশেষশনাক্ত করেছে। সন্ধানকাজে নিয়োজিত আরেকটি দল দাবি করে, তারা ভিয়েতনামের একটি দ্বীপের কাছে বিমানের কিছু ধ্বংসাবশেষ তারা চিহ্নিত করতে পেরেছে। তবে ওই খবরটি গুরুত্বপূর্ণ কোনো সূত্র থেকে নিশ্চিত করা যায়নি।

এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার মালয়েশিয়ার বেসরকারি বিমান সংস্থার প্রধান দাতুক আজহারুদ্দিন আব্দুল রহমান জানান, ওখানে তারা বিমান পাঠিয়েছিলেন। কিন্তু সেখানে কিছুই পাওয়া যায়নি।

ভিয়েতনাম কর্তৃপক্ষও জানিয়েছে, বুধবার চীনের দাবি করার পর তাৎক্ষণিকভাবে ওই এলাকায় ব্যপক অনুসন্ধান চালানো হয়েছে। কিন্তু কিছুরই দেখা মেলেনি। তারপরও অনুসন্ধান চলছে।

 

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার ২৩৯ জন যাত্রী নিয়ে কুয়ালালামপুর থেকে বেইজিং যাওয়ার পথে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয় বিমানটি। অথচ শেষবারও যখন বিমানটির সঙ্গে মালয়েশীয় বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের কথা হয়েছিল তখনও এমএইচ ৩৭০ ফ্লাইটটি জানিয়েছিল সব ঠিক আছে। কিন্তু তারপর বিমানটির ঠিক কি হলো এবং এবং যাত্রী ক্রুদের ভাগ্যে কি ঘটেছে তা নিয়ে রহস্যের আবর্তে ঘুরপাক খাচ্ছে সবাই।

বিশ্বকাপের শিরোপা পুনরুদ্ধার করা কঠিন চ্যালেঞ্জ : মঈন খান

 

টি-২০ বিশ্বকাপের শিরোপা পুনরুদ্ধার করতে তার দলকে কঠিন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে বলে মনে করছেন পাকিস্তান দলের কোচ মঈন খান। ১৬ মার্চ থেকে বাংলাদেশে শুরু হবে টি-২০ বিশ্বকাপ। গত বুধবার একটি বার্তা সংস্থাকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে মঈন বলেন, ‘সুপার আট-এর ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া, ভারত এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জয়ী হয়ে ফাইনালে পৌঁছতে পারলে পাকিস্তানের শিরোপা পুনরুদ্ধারের ভাল সম্ভাবনা আছে।তিনি বলেন, টি-২০ ক্রিকেটে যে কোন কিছুই সম্ভব মাথায় রেখে জয়ের জন্য পরিস্থিতি অনুসারে অবশ্যই খেলোয়াড়দের অতি দ্রুত কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে। তিনি বলেন, ‘অতীতে আমরা দেখেছি সুপার টেন পর্বে নিজেদের দিনে যে কোন দল একে অপরকে হারাতে সক্ষম। সুতরাং খেলোয়াড়দের তাদের শত ভাগ দিতে হবে।তার মতে টি-২০ ক্রিকেটে পাকিস্তানের কম্বিনেশনটা বেশ ভাল। একইভাবে তিনি বলেন, ‘তবে জয়-পরাজয়ের প্রত্যেক খেলোয়াড়ের ধারাবাহিকতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ হবে।টি-২০ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের রেকর্ডটা তুলনামূলক ভাল। প্রথম আসর ২০০৭ সালে ফাইনালে ওঠে দলটি। এরপর ২০০৯ সালে ইউনুস খানের নেতৃত্বে শিরোপা জয় করে। এরপর ২০১০ ও ২০১২ সালে সেমিফাইনাল খেলে। টি-২০ বিশ্বকাপের প্রতি আসরে পাকিস্তান কখনোই শেষ চারের আগে বিদায় নেয়নি। মঈন উল্লেখ করেন, ‘ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং কোন ক্ষেত্রেই কোন প্রকার ঘাটতি রাখা যাবে না এবং ইতিবাচক ফল পেতে সকল খেলোয়াড়কেই পুুরোপুরি ফিট থাকতে হবে।দলটির প্রধান কোচ বলেন, দলের ড্যাশিং অলরাউন্ডার শহিদ আফ্রিদি পুরোপুরি ফিট হয়ে উঠবেন এবং বিশ্বকাপে খেলবেন। তিনি বলেন, টি-২০ বিশ্বকাপে শোয়েব মালিক, কামরান আকমল, সোহেল তানভির এবং জুুলফিকার বাবরকে দলে পাচ্ছে পাকিস্তান। জুলফিকার প্রথমবারের মত বিশ্বকাপে খেললেও মালিক, কামরান এবং তানভির ইতঃপূর্বে চারটি আসরেই খেলেছেন।’ ‘এশিয়া কাপের ফাইনালে পৌঁছানোটা ছিল বড় উদ্দীপনার ব্যাপার। তবে জিততে না পারাটা ছিল হতাশার। স্ট্রাইক বোলার উমর গুল তার যাদু দেখাতে ব্যর্থ হয়েছেন উলে¬খ করে তিনি বলেন, ‘তার সুয়িং এবং ইয়র্কার আমরা পাইনি।ব্যাটসম্যানদের অসাধারণ পারফরমেন্সই দলকে ফাইনালে উঠিয়েছে বলেন তিনি। প্রায় তিন বছর পর দলে ফিরলেও ফাওয়াদ আলমের ব্যাটিংয়ের ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি।

নাশকতার সম্ভাবনা খারিজ নিউইয়র্কের মেয়রের

 

নিউইয়র্ক বিস্ফোরণ-কা-ের পিছনে জঙ্গি নাশকতার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিল প্রশাসন। গ্যাস লিক থেকে এই বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে জানালেন মেয়র বিল দে বালাসিও। এই দুর্ঘটনাকে অত্যন্ত দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। নতুন বার্তা। বুধবার নিউইয়র্কের ম্যানহ্যাটনে ইস্ট হারলেমের একটি বহুতলে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে৷ এতে তিন জন মিারা যায়। এদিন স্থানীয় সময় সকাল ৯টা নাগাদ বিস্ফোরণটি ঘটে। এর তীব্রতা এত প্রবল ছিল যে যার জেরে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে ছতলা পাশাপাশি দুটি ভবনটি৷ সেই সঙ্গে কালো ধোঁয়ায় ছেয়ে যায় আকাশ৷ জনবসতিপূর্ণ এলাকায় ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়ায় অসুস্থ হয়ে পড়েন বেশ কিছু মানুষ। এই দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুজন মহিলার মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। জখম হয়েছে আনেকে। উদ্ধার কাজে নিকটবর্তী ৩৬টি দমকল কেন্দ্রের অন্তত ২৫০ জন কর্মীকে নিয়োগ করেছে প্রশাসন। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন মেয়র। উদ্ধারকাজে সহায়তা করছেন তিনি। ওয়েবসাইট।

ছবি মেলা

ওয়াশিংটন, ডি.সি. আজকের আবহাওয়া:

Current Forecast
Wed, 17 Sep 2014 12:51 pm EDT
Mostly Cloudy
74°F
High: 75°F
Low: 61°F
Sunrise  6:50 am
Sunset 7:10 pm
Humidity: 40 %
Visibility: 10 mi
Barometer: 30.03 in
FALLING
 
Tommorow
 18 Sep 2014
Partly Cloudy
 
78°F / 57°F
Tommorow
 19 Sep 2014
Sunny
 
76°F / 60°F
Tommorow
 20 Sep 2014
Mostly Sunny
 
82°F / 63°F
Tommorow
 21 Sep 2014
Sunny
 
86°F / 67°F
Tommorow
 22 Sep 2014
Partly Cloudy
 
79°F / 58°F
Tommorow
 23 Sep 2014
Sunny
 
74°F / 55°F
Tommorow
 24 Sep 2014
Sunny
 
70°F / 53°F
Tommorow
 25 Sep 2014
Sunny
 
72°F / 53°F
Tommorow
 26 Sep 2014
Mostly Sunny
 
76°F / 58°F

JOIN OUR FACEBOOK PAGE-

RadioBanglaDCfacebook

MEMBERS LOGIN

EKTARALogo

 

BABALogo

 

PrioBangla

 

EkDesh

 Connecting Bangladeshis One at a Time ... ... ...

 

BCCDI

 

bdeshtv

 

khabor

 

news-bangla

 

voabangla